আজহারীকে নিয়ে পুথি কাব্য

আসসালামু আলাইকুম, হে- প্রিয় মুসলিম ভাই,
ধৈর্য ধরে শোনেন কিছু কথা কইবার চাই।
কথায় কথায় বলে লোকে নীতি হীনার মাঝে,
শত্রু হতে লাগে শুধু মনটা ভালো কাজে।

দ্বীনের পথে উদীয়মান,বক্তা আজাহারী,
এক নামেতেই দেশের সবাই তাহায় চিনতে পারি।
কেউ কি কভু বলতে পারেন এই যে দ্বীনের বক্তা,
মারছে নাকি কারো মাথায়,তল্লা বাঁশের তক্তা?

তবে কেনো তাকে নিয়ে চলছে মাতামাতি,
তার বিরুদ্ধে শত্রু হয়ে জাগছে অনেক জাতি।
দ্বীনের দাওয়াত দিতে গেলে পাচ্ছে কেনো বাঁধা?
দিচ্ছে কারা ছাইটা ঢেলে ভাতটা যখন রাঁধা?

শোনেন শোনেন ভাই বোনেরা শোনেন দিয়া মন,
শত্রুগুলোর মনের কথা বলছি কিছুক্ষন।
মোড়ে মোড়ে শিল্পীগনের নষ্ট গানের কলি,
কেন্ বাজেনা সেই ব্যাপারে চলছে দলাদলি।

দুটি টাকা করতো কামাই গান আর নাচের মাঝে,
সেসব আসর জমছে না আর দিনটা গেলে সাঁঝে।
দুঃক্ষ যে তাই গড়ছে পাহাড় বাড়ছে শোকের নদী
চেষ্টা তাদের এই আজহারী ধ্বংস হইতো যদি।

স্বজাতি ভাই পাতি ভুলের কথার মালা তুলে,
আজাহারীর গুণের দিকটা ইচ্ছাতে যায় ভুলে।
বাঘ বিনা ভাই যেমন বনে বিড়াল সেনাপতি
আজাহারীর কাছে তাদের খ্যাতির অধঃগতি।

দূর দূরান্তের লোকজনেরা কষ্ট কইরা হলেও,
আজাহারীর মাহফিলে যাচ্ছে দলে দলেও।
বাড়ির কাছে মাঠে ঘাটে থাকলে মাহফিল,
সেই বক্তাতে মুসল্লিদের খুশি হয়না দিল।

দ্বীন ঈমানের শুনতে কথা ভিড়লে লাখো লোক,
আজাহারীর দোষটা কোথায়? বাড়ছে তোমার শোক।
নীতি নৈতিকতা ভুলে, ভুলে খোদার নীতি,
আজাহারীর মুখটা দেখে মনেতে পাও ভীতি।

শোনেন শোনেন ভাই বোনেরা শোনেন দিয়া মন,
আজাহারীর দিকে কেনো ছুটছে জনগণ।
মিষ্টি স্বরে ভদ্র ভাষায় তাফসীরের বয়ান,
বলতে থাকেন অনর্গলে যখন যেথায় যান।

যশ ক্ষমতার লোভী নেতা সমাবেশে গেলে,
পায়না দেখা যতো মানুষ মাহফিলে মেলে।
ভয় লাগে তাই মনের মাঝে এই বুঝি হয় কী
জ্বলে ওঠা জনগণে ঢাললো বুঝি ঘি।

হারায় এবার ফেলতে কী হয় গদি আটা আসন,
ভয়ের চোটে নেতা জ্বী তাই দিচ্ছে বিরুপ ভাষণ।
জন্ম যে জন নিছে ও ভাই মরতে সবার হবে,
দুইদিনের এই ক্ষমতাতে ভয়টা কেনো তবে।

বাংলাদেশের জন্ম হতে এমন কথার পাখি,
দেখেনি ভাই কেউ কোনোদিন খুইলা দুইটি আঁখি।
তাকে নিয়ে শত্রুতা নয় ওহে মুসলিম ভাই,
তাহার মতো সম্পদ দেশে আর যে একটাও নাই।

বিশ্বব্যাপী জাগছে জোয়ার আজাহারীর গুণে,
সবার মনে আল্লা’র বানী যাচ্ছে পাখি বুনে।
মুসলমানের ঘরে ঘরে যতো যুবকেরা,
নামাজ ফেলে এলোমেলো করত ঘোরা ফেরা।

দলে দলে ফিরছে তারা সবাই দ্বীনের পথে,
তাঁর প্রতি তাই শ্রদ্ধাটা আসছে হৃদয় হতে।
লালন করো এই পাখিকে সকল বিভেদ ভুলে
অন্য ধর্মের হইলে তাকে রাখত মাথায় তুলে।

শোনেন শোনেন মুসল্লি ভাই শোনেন দিয়ামন,
আজকে বিশ্বে মুসমানের চলছে কঠিন ক্ষণ।
এইভাবে নয় জ্ঞাতি ভাইয়ে কাঁদার ছোড়া ছুড়ি
একটা সময় মুসলমানের কেউ ছিলোনা জুড়ি।

একই কোরান পড়ি সবাই একই আল্লাহর তরে,
থাকি যেনো মিলে মিশে সবাই আপন পরে।
নিজের মাঝে বিভেদ আনা শুধুই জাতির ক্ষতি,
সবার মনে আল-কোরানের ছড়িয়ে যাক জ্যোতি।

3450total visits,1visits today

এস এম মঞ্জুর রহমান