জারজের জীবন

জন্ম নিলাম অবহেলায়-
বাবার নিরুদ্দেশে,
লোকের ভয়ে মাগো আমায়-
ফেলে দিলো ময়লা ডোবায়,
থাকতে সাধুর বেশে!

বুকের মাঝে জানটি ছিলো-
ব্যাগের ভিতর আমি,
দেখে কুকুর মুখে নিয়ে-
কেনো খুশি বাঁচায় দিয়ে,
জানে অন্তর্যামী!

কুকুর হতে বাঁচার শুরু-
পরান কাঁপে দুরু,
খেয়ে শতেক ঝাঁটা লাথি-
হয়নি কেহ দুখের সাথী
সুখ জীবনের শুরু।

সভ্য সমাজ ঘৃণায় ডাকে,
জারজ নাকি আমি!
তাইত আমার লেখা পড়া-
সুন্দর একটা জীবন গড়া,
সবকিছু পাগলামি।

জন্ম যখন দিলে সাধু-
মারতে কেনো চাওনা?
শুধু আমায় পশুর মতো-
দিচ্ছো পীড়া ইচ্ছা যতো,
মেনে কেনো নাওনা?

পারছে না আর সইতে দেহ-
মনের মাঝে কষ্ট,
মায়ের আদর বাবার শাসন-
চাওয়া আমার হয় প্রহসন,
জীবন হলো নষ্ট।

বলতে পারো তোমারা কেহ-
কোথায় সুখের বাড়ি?
কাটছে সময় পথে পথে
বাবা মা হীন জীবন রথে
সইতে না আর পারি।

এই সমাজের উপর আলাও
জারজ ডেকে খুশি,
বাবা মা না, সমাজ পতি
দিচ্ছি না দোষ একটা রতি
নিজের ভাগ্য দুষি।

761total visits,1visits today

এস এম মঞ্জুর রহমান