জীবন বিনিময়

এক বনে অনেক ধরনের অনেক গুলো পাখি বাস করত তাদের মধ্যে কোনো সদ্ভাব ছিলো না।একে অন্যের সাথে কে কত ভালো এসব নিয়ে হিংসা, অহংকার, বড়াইতে মেতে থাকত। শুধুমাত্র একটি পাখি যে ছিলো দুধের মতো সাদা রংয়ের মাথায় রাজার মত ঝুটি আর লম্বা লেজ তার মনে কোনো অহংকার ছিলো না,সে চিন্তা করত কিভাবে সবাইকে মিলেমিশে রাখা যায়,কোনো দুর্যোগ মূহুর্তে সবাই ভালো ভাবে থাকতে পারে। যার সাথে তার যখন দেখা হতো সে বুঝিয়ে বলত ঝগড়া,অহংকার না করার জন্য কিন্তু কেউ কথা মানত না, তাই একদিন সে সবাই কে মিটিং এ ডেকে তার মনের কথা ব্যক্ত করতে শুরু করল।বক্তব্য শেষ না হতেই অন্যান্য পাখিদের মধ্যে একে অন্যের দোষারোপ করতে করতে কথা কাটা কাটি হতে ঠোকাঠুকি শুরু হয়ে গেলো,সাদা পাখিটি ঝগড়া ঠেকাতে গিয়ে তাদের ঠোঁটের আঘাতে ভীষণ ভাবে আহত হল এবং সাদা শরীর রক্তে লাল হয়ে গেলো।সাদা পাখির এ অবস্থা দেখে অন্যরা স্তব্ধ হয়ে গেলো,সে ছটফট করতে করতে মারা যাবার পূর্বে শুধু বলে গেলো,তোমাদের সবার আলাদা আলাদা ভালো গুন আছে কেউ হিংসা অহংকার করোনা,এক জনের গুন অন্য জনের উপকারে ব্যবহার করো,তোমরা সবাই ভালো থাকবে,বিদায় বন্ধুরা বিদায়।

তার এই বিদায়ে আর উপদেশের কথা ভেবে অন্যরা নিজেদের বদলাতে শুরু করে এক সময় সমস্ত বনে শান্তি নেমে আসে,সবাই সুখী হয় আর সাদা পাখির কথা ভুলে যায়।

শিক্ষা: –
পৃথিবীতে ভালো মানুষেরা এমন কিছু অর্জন করে যান যার সুবিধা পান অন্যরা।

924total visits,1visits today

এস এম মঞ্জুর রহমান

Leave a Reply