পথশিশুর শীত

পথের শিশু অনাদরে অবহেলায় শীতের মাঝ,
তাদের দেখে কবি লেখক গড়ছে দারুণ কাব্য আজ।
মা বাবা হীন অন্নবিনা শীর্ণপোশাক দিয়ে গায়,
রাতের বুকে ঘুমায় পথে যেথায় যখন জায়গা পায়।

সাংবাদিকে আনছে তুলে ক্যামেরাতে চিত্রপট,
ধনীরা সব মুখফিরিয়ে নিজের ঘরটা করে হট।
নেতার মাথায় ভাবনা ভীষণ আগায় যাবে ক্যামনে দেশ,
সবার মাঝে থেকে শিশু শীত কামড়ে হচ্ছে শেষ।

সবাই ভালো এই দুনিয়ায় করলে বিচার নিজের মন,
সেই ভালোতে ঐ দুখীদের কাটছে না রাত দুখের ক্ষণ
পথের পরে রাত্রি ধরে কাঁপছে শীতে সারাক্ষণ,
শীতে তাদের গরম কাপড় দিচ্ছে নাকো কোনোজন।

পথের শিশুর কষ্ট নিয়ে গবেষণার দিয়ে ফল,
অর্জন হলেও বিশ্বপদক যায়না তাদের চোখের জল।
যায়না তাদের অন্ন পেটে পায়না পোশাক দিতে গায়,
দুঃখ দেখে যুগান্তরে সবাই শুধু বলে হায়!!

এই বেড়াজাল ভাঙতে হবে পথের শিশুর জন্য ভাই,
স্বল্প দানে মনবতায় সেবায় কোথাও লাজতো নাই।
হোক পুরাতন তবু যদি শীত নিবারণ সম্ভব হয়,
দিয়োরে ভাই শিশুর গায়ে যদি পথে ঘুমায় রয়।
—সমাপ্ত–

649total visits,1visits today

এস এম মঞ্জুর রহমান