বঙ্গবন্ধুকে চিনি

বঙ্গবন্ধুকে চিনি

এ যুগেরি সন্তান আমি-
স্বাধীন দেশের ছেলে,
যে দিকে এ দুচোখ মেলি
যুদ্ধের গল্প মেলে।

আমি যুদ্ধ দেখিনি কভু-
দেখিনি রণের রক্ত,
তবুও আমি স্বাধীনতায়
মুক্তি কামীর ভক্ত।

দেখিনি আমি পশ্চিমাদের-
শোষণ কিংবা শাসন,
শুনেছি আমি বঙ্গবন্ধুর
যুদ্ধে যাবার ভাষণ।

মনের পটে আগুন জ্বালায়-
পাক নেতাদের বুলি,
সৃষ্ট ঘৃনার তেষ্টা মেটাই
করি তাদের গুলি।

আমি যুদ্ধ দেখিনি তবু-
বঙ্গবন্ধু কে চিনি,
সাহসী স্বরে তর্জনীটা
উঁচু করেন যিনি।

যাঁর ভাষণে প্রতি শব্দে-
প্রতিশোধের ডাক,
প্রতিধ্বনি বাংলা জুড়ে
বাজায় সমর ঢাক।

কোটি কোটি এই বাঙ্গালি-
ফুলের মালা গলে,
স্বাধীনতায় ত্যাগে যাকে
জাতির জনক বলে।

আমি সভ্য যুগের ছেলে-
হায়না দেখিনি কভু,
মানুষ রূপী নরখাদকের
কাণ্ড দেখেছি তবু।

আমি শয়তান দেখিনি চোখে-
তবে দেখি বেঈমান,
স্বপরিবারে নিলো যারা
বঙ্গবন্ধুর জান।

যাঁর শরীরের রক্ত বিন্দু-
ভাবত প্রতিক্ষণে,
মুক্তির সুখ কেমনে পাবে
বাংলার প্রতিজনে।

সেই হৃদয়ে কোন পাষাণে-
বুলেট ছুড়ে ছুড়ে,
দিয়ে গেলো মহান নেতার
লাশ কাফনে মুড়ে।

বঙ্গবন্ধু মননে মোর-
জাতির দিশারী,
মৃত্যু তাহার ঘরের শত্রুর
আরেক হুশিয়ারি।

1059total visits,1visits today

এস এম মঞ্জুর রহমান

Leave a Reply