কাল বৈশাখী ঝড়

আকাশ হতে কালবৈশাখী নেমে ভূমির পর,
যাচ্ছে বয়ে তীব্র বেগে ঘর পেরিয়ে ঘর।
উড়ছে ধূলা শুকনা পাতা ঘনায় অন্ধকার,
মেঘের কোলে বিজলি জ্বলে ডাকছে বারে বার।

ভর দুপুরে সন্ধ্যা নেমে ভীতির পরিবেশ,
মাঠের ফসল গাছ পালা সব ভেঙ্গে চুরে শেষ।
ঘরের চালের টিন গুলো সব ঘূর্ণি বায়ুর সাথ,
উড়ছে আকাশ লক্ষ্য করে দিনকে করে রাত।

মড়মড়ে সব ভাঙছে গাছে গড়গড়িয়ে মেঘ,
ভয়ে সবাই জড়োসড়ো বাড়ছে ঝড়ের বেগ।
বছর জুড়ে গড়ে তোলা হাজার ফুলের বাগ,
চৈত্র মাসের শেষ বিকেলে ধ্বংসে ঝড়ের রাগ।

নাশ বিনাশের নৃত্য শেষে আকাশ ছুঁয়ে ছাদ,
ঝমঝমাঝম বৃষ্টি ফেলে পুরছে মনের সাধ।
দুপুর বেলায় আঁধার কেটে যতই আলো হয়,
চালহিনা ঐ দুখীর ঘরে জোরছে বন্যা বয়।

কাল বৈশাখী সর্বনাশী হিংসুটে এক ঝড়,
দালান কোঠা ছোঁওনা তুমি ভাঙ্গো দুখীর ঘর।
নিঃস্ব গরীব কৃষক ভায়ের কষ্টে বোনা ধান,
ধ্বংস করে তাদের বুকের সুখকে করো ম্লান।

নিঃস্ব করার ধ্বংস লীলা চাইনা আসুক বাড়ি,
বৈশাখী ঝড় তোমার সাথে আড়ি আড়ি আড়ি।

—সমাপ্ত—

2059total visits,1visits today

এস এম মঞ্জুর রহমান

Leave a Reply